সাবেক সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

রাজধানীর নর্দা এলাকায় শাহনাজ আক্তার সুরভী (২১) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নর্দার ক-২৪/বি সিরাজ সরকারের বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত সুরভীর স্বজনরা বলছেন, পরিকল্পিতভাবে স্বামী তাকে খুন করেছে। পুলিশ এ ঘটনায় সুরভীর স্বামী সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট হেলাল উদ্দিন (৪০)-কে আটক করেছে। স্বজনরা দাবি করেন, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা হেলাল গাড়ি ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। স্ত্রী সুরভী এতে বাধা দেয়ায় তাকে খুন করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

গুলশান থানার এসআই মেহেদী জানান, স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বাইরে থেকে দরজা বন্ধ। ভেতরে ঢুকে শোয়ার রুমের বিছানায় সুরভীর লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এভাবে লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। ধারণা করা হচ্ছে, স্বামী তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। খবর পেয়ে সুরভীর স্বজনরা তার মৃত্যুর জন্য স্বামীকেই দায়ী করেন। নিহত সুরভীর স্বামী হেলাল উদ্দিন পুলিশকে জানান, সকালে ব্যবসার কাজে বাসা থেকে বের হন তিনি। পরে বিকালে বাসায় ফিরে দেখেন তার স্ত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

সুরভীর স্বামী গাড়ি ভাড়া দেয়ার ব্যবসা করেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন। হেলাল উদ্দিনকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে সুরভীর মা জহুরা বেগম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আড়াই বছরের একটি ছেলে রয়েছে সুরভীর। মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার কুসুমপুর গ্রামের শাহজাহান মিয়ার মেয়ে সুরভী। পুলিশ জানায়, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

[ad#co-1]