মুন্সীগঞ্জ বিএনপি’র দু’ গ্রুপে উত্তেজনা

বিএনপি’র দ্বিধাবিভক্ত দুই গ্রুপের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক মিজানুর রহমান সিনহার নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা ও আহ্বায়ক কমিটি থেকে ৫ নেতাকে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য এম. শামসুল ইসলামের সমর্থকরা গতকাল শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক শাহজাহান সিকদার, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কাজী আবু সুফিয়ান বিপ্লব ও জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে মেথরপট্টি এলাকা থেকে মিছিলটি বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে দলীয় কার্যালয় চত্বরে এক প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা শাহজাহান সিকদার ও গুলজার হোসেন প্রমুখ।

শাহজাহান সিকদার বলেন, গত ১০ই অক্টোবর দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা শমসের আলম ভূঁইয়া, সিরাজুল হক ফক্কু বেপারী, ডা. সালাম সরকার, মীর মোশাররফ হোসেন ও মোশাররফ (টঙ্গীবাড়ী) কে আহ্বায়ক কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয় এবং শাহজাহান সিকদারকে শোকজ করা হয়। সিকদার বলেন, আহ্বায়ক মিজান সিনহা দল ভাঙছেন। গতকাল দলীয় অফিসে তিনি মিটিং করেছেন। কিন্তু ওই ৫ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত মিজান সিনহাকে পার্টি অফিসে ঢুকতে দেয়া হবে না। ওদিকে আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপি দুই গ্রুপ বিভক্ত হয়ে পড়ে। ঈদের আগে দলের মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন ৮০ সদস্য বিশিষ্ট জেলা আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে তা অনুমোদন করে দেন।

এরপর থেকে এম. শামসুল ইসলাম ও মিজানুর রহমান সিনহা গ্রুপের বিরোধ প্রকাশ্যে রূপ নেয়। ১০ই অক্টোবর আহ্বায়ক কমিটি থেকে শামসুল ইসলাম গ্রুপের ৫ জনকে বহিষ্কার এবং মিজানুর রহমান সিনহা ও আবদুল হাই গ্রুপের ২৯ জনকে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করেন দলের মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন। এ ব্যাপারে মিজানুর রহমান সিনহার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, আপনারা পত্রিকায় লেখেন, তারপর আজকের সভায় আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।

[ad#co-1]