পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পের মাওয়া এলাকা উত্তপ্ত ক্ষতিগ্রস্তদের বিক্ষোভ ও সমাবেশ অব্যাহত

কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ থেকে: ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জের মাওয়ায় পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্পের মাওয়া এলাকা উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে টাকা বিতরণ ও জমির মূল্য নির্ধারণে প্রসহনমূলক আচরণের অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্তরা। এরই প্রতিবাদে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের যথাযথভাবে পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণের দাবিতে মাওয়া মৎস আড়ত ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি আন্দোলনে নেমেছে। তারা বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে। গত শুক্রবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে মাওয়া মৎস আড়ত ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি। অপরদিকে গত রোববার পদ্মা সেতুর ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি সমাবেশ করে।

ওই সমিতির সমিতির সভাপতি গিয়াসউদ্দিন বলেন, আবাদি জমি, বসতভিটা হারানো ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি শতাংশ জমির মূল্য দিচ্ছে সরকার মাত্র ১৮ হাজার থেকে ২২ হাজার টাকা টাকা দরে। মাওয়া ২ নং ফেরিঘাটের দোকান মালিক গোলাম মাওলা ক্ষতি পাচ্ছেন না। সেই ক্ষতির টাকা এসেছে ওই দোকানের ভাড়াটিয়া খালেক কোম্পানির নামে।

মাওয়া মৎস্য আড়ৎ ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি ছানা রমন দাস বলেন, প্রশাসনের অসৎ কর্মকর্তারা দুর্নীতির মাধ্যমে তাদের পুনর্বাসনের সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করছে। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য ব্যবসায়ীরা ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের অর্থ পাচ্ছে না। গত ১৮ আগস্ট মাওয়া মৎস্য আড়ৎ ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবরে ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের বিষয়টি অবহিত করেন। কিন্তু প্রতিকার পাননি।

[ad#co-1]