মহিউদ্দিনের মুন্সীগঞ্জ আগমনে পালাচ্ছে প্রতিপক্ষ

ভাইয়ে ভাইয়ে বিরোধের জের
মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের ভয়ে এলাকা থেকে পালানো শুরু করেছেন তার ছোট ভাই সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামানের অনুসারীরা। মহিউদ্দিন জামিনে মুক্তি পেয়ে আজ বৃহস্পতিবার এলাকায় আসছেন। এদিকে তার সঙ্গে তার ছোট ভাইয়ের বিরোধ চলছে দীর্ঘদিন থেকে।
মহিউদ্দিনের আগমন উপলক্ষে শহরের প্রধান সড়কে ৫টি তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। তাকে স্বাগত জানাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে লাগানো হয়েছে ব্যানার-ফেস্টুন। জানা গেছে, পারিবারিক দ্বন্দ্ব ও ক্ষমতার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মহিউদ্দিন ও তার ছোট ভাই আওয়ামী
লীগ নেতা আনিসুজ্জামানের মধ্যে বিরোধের কারণে জেলা আওয়ামী লীগ দুভাগে বিভক্ত হয়ে আছে। এদিকে অবৈধ সম্পদ অর্জন ও কর ফাঁকির মামলায় আসামি হয়ে মহিউদ্দিন ওয়ান ইলেভেনের পর থেকে প্রায় ২ বছর আত্মগোপনে থাকেন। মহাজোট ক্ষমতায় আসার পর গত ১৯ মে তিনি ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। ২৭ দিন ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকার পর গত ১৪ জুন রোববার তিনি ছাড়া পান। তার অনুপস্থিতিতে মুন্সীগঞ্জে ছোট ভাই আনিসুজ্জামানের একচ্ছত্র প্রভাব ছিল। দলের অধিকাংশ নেতাকর্মী তখন আনিসুজ্জামানের পক্ষে অবস্থান নেয়। মহিউদ্দিন জামিন পাওয়ার পর থেকে জেলা আওয়ামী লীগের চিত্র পাল্টে যেতে থাকে। অনেকটা স্তিমিত হয়ে পড়ে আনিসুজ্জামানের লোকজনের তৎপরতা। তার অনুসারীরা এখন রয়েছেন আতঙ্কে। মহিউদ্দিনের এলাকায় আগমনের খবর পেয়ে এদের বেশিরভাগই আত্মগোপনে চলে যাচ্ছেন। কেউ কেউ সুর পাল্টে মহিউদ্দিনের পক্ষে থাকার চেষ্টা চালাচ্ছেন। এদিকে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান অবশ্য বলেছেন, মহিউদ্দিন তার বাড়িতে আসবেন এটাই স্বাভাবিক। এতে আমি বা আমার সমর্থকদের কেউ বিচলিত নই।