মুন্সীগঞ্জে পরিবহন শ্রমিকদের হামলায় ১৫ যাত্রী আহত হয়েছেন

ঢাকা- মুন্সীগঞ্জ সড়কে শহরের উপকণ্ঠে মুক্তারপুর সেতুর পশ্চিম প্রান্তে রোববার দুপুরে বাস শ্রমিকদের হামলায় মুক্তিযোদ্বা ও সরকারি কর্মকর্তাসহ কমপক্ষে ১৫ যাত্রী আহত হয়েছেন। অতিরিক্ত যাত্রী ওঠানোকে কেন্দ্র করে ঢাকা ট্রান্সপোর্ট লিমিটেড (ডিটিএল) পরিবহন শ্রমিকদের সঙ্গে যাত্রীদের বাকবিত-ার একপর্যায়ে এ হামলা করে পরিবহন শ্রমিকরা। এ ঘটনায় এ সড়কে চার ঘণ্টা বাস চলাচল বন্ধ থাকে। পুলিশ বাসের চালক জালাল ও হেলপার রশীদকে গ্রেপ্তার করেছে। আহত মুক্তিযোদ্ধা কাদির মোল্লা (৫২), বন কর্মকর্তা ফরিদউদ্দিন আহমেদ (৪৫), সালাউদ্দিন বাবুলকে (৪২) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও যাত্রীরা জানায়, মুন্সীগঞ্জ শহরের লিচুতলা বাস কাউন্টার থেকে ডিটিএল পরিবহনের একটি বাসে যাত্রীরা ওঠেন ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে। দুপুর সাড়ে ১২টায় বাসটি শহরের উপকণ্ঠে মুক্তারপুর এলাকায় সেতুর পশ্চিম প্রান্তে ডিটিএলের কাউন্টারে পৌঁছলে চালক ও হেলপার অতিরিক্ত যাত্রী ওঠানো শুরু করে। এতে বাসে থাকা যাত্রীরা বাধা দিলে চালক-হেলপারের সঙ্গে বাকবিত-া হয়। পরে কাউন্টার ও ওই এলাকার ডিটিএল বাসের ১৫ থেকে ২০ জন শ্রমিক লাঠিসোটা নিয়ে যাত্রীদের ওপর হামলা চালায়। অন্যদিকে দুপুর ১টা থেকে যাত্রীরা ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কে ডিটিএল পরিবহনের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়। পরে বিকাল সোয়া ৪টায় যাত্রীদের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতে বাস চলাচল শুরু হয়।