মুন্সীগঞ্জে মুক্তারপুরে পর্যাপ্ত গ্যাস সরবরাহের দাবি

শফিকুল ইসলাম: রাজধানীর অদুরে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর শিল্প এলাকায় গড়ে উঠেছে একাধিক শিল্প প্রতিষ্ঠান। কিন্তু সম্প্রতি সেখানে সরবরাহকৃত গ্যাসে পর্যাপ্ত চাপ নেই। ফলে কারখানা চলছে না। বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে শিল্পের অগ্রগতি। এ পরিস্থিতি সামাল দিতে মালিকরা সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহের নিশ্চয়তা চেয়েছেন। জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলণে তারা এ দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন এশিয়ান গ্র“পের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হারুন-উর-রশিদ। এ সময় এশিযান টেক্সটাইলের ব্যবস্থাপক মামুন, আকিজ ম্যাচ ফ্যাক্টরীর শেখ বশির উদ্দিন, মদিনা ডাইং-প্রিন্টিং এন্ড প্রসেসিং’র হরকুমার বৈষ্ম দীপু, বর্ণালী ফেব্রিক্স’র ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রশিদ, মোল্লা নীট এ্যাপারেল’র মো: ফরিদ উদ্দিন, অরবিট ফ্যাশানস’র মো: সালাহউদ্দিন, এশিয়া পেপার এন্ড বোর্ড মিলের ফকির শফিউজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেছেন, এ সকল দাবি নিয়ে শিল্প মালিকরা যৌথভাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী ফারুক খান, শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়-য়া, পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীসহ সবশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পৃথকভাবে দেখা করে সমস্যার কথা জানিয়েছেন। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি।

তারা অত্র এলাকায় গ্যাস সরবরাহের বিষয়টি নিশ্চিত করণসহ বয়লার, সিএনজিং, মার্সারাইজিং, রোটর এবং প্রিন্টিং মেশিন চালানোর জন্য প্রতি ঘনফুট গ্যাসের দাম ৩ টাকা ৭৩ পয়সা নির্ধারণসহ ডিজেল জেনারেটর আমদানির ক্ষেত্রে ৫বছর মেয়াদী ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা, সুদের হার ও এলসি মার্জিন ৫ শতাংশ নির্ধারণ এবং রেশনিং’র মাধ্যমে ২০ টাকা লিটার দরে কার্ডের মাধ্যমে সরাসরি ডিপো থেকে প্রয়োজনীয় ডিজেল সরবরাহের দাবি জানিয়েছেন।

http://www.amaderorthoneeti.com/content/2009/05/05/news0951.htm