গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে সাতদিনে ১০টি নৌডাকাতি

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার টানবলাকী, ভবানীপুর ও রসুরচর গ্রামসংলগ্ন মেঘনা নদীতে গত সাত দিনে কমপক্ষে ১০টি নৌডাকাতি ও চাঁদাবাজির ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয় সুত্র জানায়, ২০ মার্চ রাতে বালুবাহী কার্গো শান্তা সাগর-১-এ হামলা চালিয়ে নৌডাকাতেরা কার্গোর মাস্টারকে কুপিয়ে জখম করে এবং নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনসেট লুটে নেয়। ২২ মার্চ রাতে টানবলাকী মোড়ে মেঘনা নদীতে পণ্যবাহী কার্গোতে ডাকাতদের হামলায় তিনজন আহত হয়।
২৪ মার্চ রাতে তিনটি পণ্যবাহী ট্রলারে হামলা চালিয়ে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনসেট লুট করে ডাকাতেরা। ২৫ মার্চ সকালে বালুবাহী একটি কার্গোতে হামলা চালিয়ে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনসেট লুট করার সময় শাহ আলী নামের একজন নৌডাকাত ও চাঁদাবাজকে গজারিয়া থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় শাহ আলীসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে।
দীর্ঘদিন ধরে মেঘনা নদীর উল্লিখিত স্থান দিয়ে যাতায়াতকালে বালুভর্তি কার্গোসহ অন্যান্য মালামাল ভর্তি কার্গো জাহাজে রাতের আঁধারে ডাকাতি ও দিনের বেলায় চাঁদাবাজি চলছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম ডাকাতি ও চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করে জানান, পুরো ডাকাত চক্রের নাম পাওয়া গেছে।
তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মুন্সিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) ফাইজুল কবীর জানান, নৌডাকাতি ও চাঁদাবাজির বিষয়ে পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।