মুন্সীগঞ্জে সহিংসতা: বোমা ভাঙচুর ও হামলায় আহত ৫০

কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিদিনই উপজেলা বিভিন্ন স্থানে হামলা, বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটছে। গত এক সপ্তাহে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় অর্ধশতাধিক বিএনপি ও আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থীর নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

এখানে আওয়ামী লীগের বিজয়ী ও পরাজিত প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও বোমা বিস্ফারণের ঘটনাও অব্যাহত রয়েছে। চরাঞ্চলে শত শত বিএনপির নেতাকর্মীরা নব্য আওয়ামী লীগের কর্মী সেজেও নির্যাতন থেকে রক্ষা পাচ্ছে না। এ সব ঘটনা পুলিশ অবগত হলেও তারা দায়ছাড়া গোছের ন্যায় দায়িত্ব পালন করছে। বিএনপি ও আওয়ামী লীগের মহিউদ্দিন গ্র“পের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবলীগ নেতা ফয়সাল আহমেদ বিপ্লব এমন অভিযোগ জানিয়েছেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের দুই গ্র“পের মধ্যে উপজেলা নির্বাচনের পর এখানে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন গ্র“পের নেতাকর্মীরা কোনঠাসা হয়ে পড়ায় সদ্য নির্বাচিত চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা আনিছুজ্জামান আনিছ গ্র“পের নেতাকর্মীরা উপজেলার বিভিন্নস্থানে বিএনপি ও মহিউদ্দিন গ্র“পের নেতাকর্মীদের নির্যাতনসহ তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করছে। এর মধ্যে শহরের ছবিঘর সিনেমা হল এলাকায় যুবলীগ কর্মীরা তরুন লীগ নেতা সোহেলকে বেদম প্রহার করে পাশ্ববর্তী স্থানে ফেলে রাখে। খবর পেয়ে আওয়ামী লীগের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ফয়সাল আহমেদ বিপব ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।