মুন্সীগঞ্জে এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম এখনো কমেনি

গোলজার হোসেন, মুন্সীগঞ্জ
আন্তর্জাতিক বাজারে জালানি তেল ও গ্যাসের মূল্য কমে গেলেও মুন্সীগঞ্জে লিকুইড প্যাট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) দাম এখনো আকাশচুম্বি। মূল্য নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ নেই।
জানা গেছে মুন্সীগঞ্জে বসুন্ধরা, টোটাল ও ক্লিনহিট কম্পানির এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ১ হাজার ৩৫০ থেকে ১ হাজার ৪০০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে।
শহরের মানিকপুর এলাকার রওশন আক্তার জানান, শহরের অনেক স্থানে সাপ্লাইয়ের গ্যাস পৌঁছেনি। বাধ্য হয়ে সিলিন্ডারের এলপি গ্যাস ব্যবহার করতে হচ্ছে। ৬ বছর আগে ৩২০ টাকা ছিল প্রতি সিলিন্ডার এলপি গ্যাসের দাম। তা বাড়তে বাড়তে এখন ১ হাজার ৪০০ টাকা হয়েছে। মাস খানেক আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেল ও গ্যাসের মূল্য কমলেও স্থানীয় বাজারে এলপি গ্যাসের দাম কমাচ্ছে না।
এলপি গ্যাসের স্থানীয় এজেন্ট মো. নোয়াব আলী জানান, আমাদের ১ হাজার ২৯০ টাকা দরে এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার কিনতে হয়েছে। ট্রান্সপোর্টসহ অন্যান্য খরচ দিয়ে আমাদের ১ হাজার ৩৫০ টাকার নিচে বিক্রি করা সম্ভব হচ্ছে না। এলপি গ্যাস সিলিন্ডার নতুন মূল্য (কম দর) তালিকা আমরা এখনো পাইনি।
জেলা কনজিউমার এসোসিয়েশনের সভাপতি জাহাঙ্গীর সরকার মন্টু জানান, কোনো জিনিসের পাইকারি মূল্য কমে গেলে খুচরা মূল্য সহজে কমে না। অথচ দাম বাড়ার কথা শোনামাত্র খুচরা বাজারে জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে দেয়া হয়। আন্তর্জাতিক বাজারে বা পাইকারি বাজারে দাম কমে এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার।